হাসপাতালে কর্মচারীদের হামলায় আহত চার সাংবাদিক

0
595

ত্রিশাল(ময়মনসিংহ)প্রতিনিধিঃ সংবাদ প্রকাশের জেরে ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মচারীদের হামলায় আহত হয়েছে চার সাংবাদিক। শনিবার সকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তথ্যের জন্য গেলে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার নির্দেশে পরিকল্পিত ভাবে এ হামলা চালানো হয়।

এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে ভুক্তভোগী সাংবাদিকরা। ঘটনার পরপরই ত্রিপল নাইন এর ফোন পেয়ে ত্রিশাল থানা পুলিশ ও ত্রিশালের সাংবাদিকরা ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের উদ্ধার করে।

জানাযায়, ত্রিশাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অনিয়ম নিয়ে গত কয়েকদিন যাবৎ একাধিক পত্রিকায় প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। শনিবার সকালে হাসপাতালে খাবারের নিম্নমান নিয়ে সরজমিনে তথ্য সংগ্রহ করতে গেলে সাংবাদিকদের উপর হামলা চালায় কর্মচারীরা। এসময় আহত হয় দৈনিক আজকের পত্রিকার ত্রিশাল উপজেলা প্রতনিধি সাইফুল আলম তুহিন, নয়া শতাব্দীর রাকিবুল হাসান সুমন, দেশ সংবাদের রিয়াদুল হাসান এবং গণমুক্তির মাসুদ রানা। পরে তারা স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা নেয়।

আহত সাংবাদিক সাইফুল আলম তুহিন বলেন, হাসপাতালের নানা অব্যবস্থাপনা নিয়ে বিগত কয়েকদিন ধরে আমরা সংবাদ প্রচার করে আসছি। এতে রোগিদের মধ্যে কিছুটা স্বস্থি এসেছে। রোগি এবং তাদের স্বজনদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে শনিবার সকালে হাসপাতালের খাবারের মান নিয়ে তথ্য চাইতে গেলে বাবুর্চি সোহরাব হোসেন প্রথমে ক্যামেরায় হাত দেয়। পরে তাৎক্ষণিক ৬ থেকে ১০জন এসে অতর্কিত হামলা শুরু করে। তাদের হামলায় রক্তাক্ত জখম হয়েছি আমরা চারজন। পরে স্থানীয় সাংবাদিক এবং পুলিশ এসে আমাদের রক্ষা করে।

নয়া শতাব্দীর রাকিবুল হাসান সুমন বলেন, হাসপাতালের কর্মচারীরাই প্যাথলজিক্যাল থেকে শুরু করে সবকিছু করেন। এ নিয়ে আমার করা একটি ভিডিও রিপোর্ট ভাইরাল হয়। এঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে আমাদের উপর হামলা করে। পরে ৯৯৯ কল করলে পুলিশ এসে আমাদের উদ্ধার করে। মারধরে শরীরের অবস্থা খারাপ হওয়ায় স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা নেই।

আহত সাংবাদিক কবি মাসুদ রানা বলেন, হাসপাতালের কর্মচারী সোরহাব এসে আমাদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় সে বলে আমাদের টিএইচও( ডাঃ নজরুল ইসলাম) স্যার বলছে এদেরকে মেরে বেধে রাখতে এ কথা বলেই আমাদের উপর ৬/১০ মিলে হামলা করে আহত করে। পরে পুলিশ ও অন্যান্য সাংবাদিকরা গিয়ে উদ্ধার করে।

ত্রিশাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাইন উদ্দিন বলেন, সাংবাদিকদের উপর হামলার বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। এবিষয়ে তদন্ত চলছে।

এ ঘটনায় স্থানীয় সাংবাদিকদের মাঝে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। ইতিমধ্যে সাংবাদিকরা টিএইচও ও ওসিকে এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন। না হলে তারা সাংবাদিকদের উপর হামলার বিচার চেয়ে বৃহত্তর আন্দোলনের কর্মসূচী দিবেন।

এফএস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here