সেই নবজাতককে গলাটিপে হত্যা করে মা

0
242

মানুষের জন্য ডেস্ক: টাঙ্গাইলের দেলদুয়ারে রাস্তার পাশে ফেলে দেয়া সেই নবজাতককে গলাটিপে হত্যা করেছে মা। আদালতে ঘটনার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন তিনি।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ২ জুন উপজেলা সদরের সাবরেজিস্ট্রি অফিস সংলগ্ন দেলদুয়ার টাঙ্গাইল সড়কের পাশ থেকে এক নবজাতকের লাশ উদ্ধার করে থানা পুলিশ। ওই সময় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনের পর ঘটনাটি হত্যা মামলায় রূপান্তর হয়।

রোববার পুলিশ মামলার আসামি নবজাতকের মা সুমি আক্তার (২৬) ও নানি সাহারা বেগমকে (৪৫) গ্রেফতার করে আদালতে পাঠায়। তারা টাঙ্গাইল সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলি আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

জবানবন্দিতে তারা জানান, মা নবজাতকের গলাটিপে ধরে এবং নানি মাথা চেপে ধরে হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটায়।

জানা যায়, উপজেলার ফাজিলহাটী উনিয়নের দেলুয়াকান্দি গ্রামের মো. নসু মিয়ার মেয়ে সুমি আক্তারের স্বামী মির্জাপুর উপজেলার বানাইল ইউনিয়নের বররা গ্রামের মো. শওকত মিয়া প্রবাসে থাকা অবস্থায় পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে সুমি। এরই মধ্যে সে গর্ভবতী হয়ে পড়ে গত ২ জুন টাঙ্গাইলের কোনো এক হাসপাতালে এক পুত্রসন্তান জন্ম দেন সুমি আক্তার।

পরে সুমি ও তার মা সাহারা বেগম গলাটিপে নবজাতককে হত্যা করে দেলদুয়ারে এসে রাস্তার পাশে ফেলে দেন। এদিকে আদালতে সুমির জবানবন্দি অনুসারে পরকীয়া প্রেমিক ভররা গ্রামের ছানোয়ার মিয়াকে সোমবার আটক করে রিমান্ডে নিয়েছে থানা পুলিশ।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই দিপু সরকার জানান, নবজাতকের পিতৃপরিচয় নিশ্চিতের জন্য গ্রেফতারকৃত ছানোয়ারের ডিএনএ টেস্টের আবেদন করা হয়েছে। মামলাটি তদন্তনাধীন রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here