লিভার প্রতিস্থাপনের সুপারিশ খালেদা জিয়ার

0
1019

শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে ঘন ঘন সিসিইউতে নেওয়া হচ্ছে। তার শরীরে লিভার প্রতিস্থাপনের সুপারিশ করেছেন সাবেক এ প্রধানমন্ত্রীর চিকিৎসায় গঠিত মেডিক্যাল বোর্ড। এখন এ ছাড়া অন্য কোনো চিকিৎসা নেই বলে জানিয়েছেন তারা।

রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়াকে গতকাল শুক্রবার দুপুরে করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) নেওয়া হয়। সেখান থেকে বিকেলে আবারও তাকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়। এ সময়ে খালেদা জিয়ার সিটি স্ক্যান, আল্ট্রাসনোগ্রাম ও ইসিজিসহ কয়েকটি পরীক্ষা করা হয়েছে।

চিকিৎসকরা জানান, সিসিইউতে বেগম খালেদা জিয়ার শরীর থেকে পানি বের করা হয়েছে। লিভার সিরোসিসের কারণে তার পেটে পানি জমে যাচ্ছে। পরে তা বের করা হচ্ছে। তার শরীরে জ্বরও আছে। ইলেকট্রোলাইট ইমব্যালেন্স হওয়ায় শরীরে দুর্বলতা আছে। স্যুপ ও তরল জাতীয় সামান্য কিছু খাবার ছাড়া তিনি তেমন কিছু খেতে পারছেন না। হাসপাতালের বিছানায় তাকে সারাক্ষণ থাকছে হচ্ছে ইনজেকশন ও স্যালাইনের ওপর। মেডিক্যাল বোর্ডের সদস্যরা ২৪ ঘণ্টা মনিটরিংয়ের পাশাপাশি সুস্থতার জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

বেগম খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন বলেছেন, ‘বোর্ডের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ম্যাডামের লিভার প্রতিস্থাপন জরুরি হয়ে পড়েছে। সেজন্য তাকে দ্রুত বিদেশে উন্নত মাল্টি ডিসিপ্ল্যানারি সেন্টারে পাঠানো দরকার।

৭৮ বছর বয়সী খালেদা জিয়া কিডনি, ফুসফুস, হৃদরোগ, লিভার জটিলতায় ভুগছেন। গত ৯ আগস্ট রাতে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য খালেদা জিয়াকে এভার কেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. শাহাবুদ্দিন তালুকদারের নেতৃত্বে ১৯ সদস্যের একটি মেডিক্যাল বোর্ড তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রেখে চিকিৎসাসেবা দিচ্ছেন।

এদিকে আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক আজ শনিবার মন্তব্য করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর বিষয়ে এখন পর্যন্ত তার কাছে কোনো আবেদন আসেনি। আবেদন করলে খালেদা জিয়ার বিষয়টি দেখা যাবে বলেও জানান তিনি।

এফএস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here