Sunday, May 19, 2024
Homeধর্মমক্কার খতম তারাবিতে ২৫ লাখ মুসলমান

মক্কার খতম তারাবিতে ২৫ লাখ মুসলমান

মক্কার গ্র্যান্ড মসজিদ মসজিদুল হারামে খতম আল কুরআনের শেষ দিনে (রমজানের ২৮তম রাত) হজ যাত্রী ও হজ যাত্রীসহ ২৫ লাখ মুসলমান অংশ নেন। সৌদি গেজেটের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, পবিত্র রমজান মাসে তারাবীহ নামাজে পুরো কুরআন তিলাওয়াতের সমাপ্তি হলো খতম আল-কুরআন নামাজ। সৌদি সরকারের দুটি পবিত্র মসজিদের (মসজিদুল হারাম ও মসজিদ নাবি) প্রধান শেখ আব্দুর রহমান আল-সুদাইস সেদিন তারাবির নামাজের ইমামতি করেন।

মক্কার গ্র্যান্ড মসজিদ মসজিদুল হারামে খতম আল কুরআনের শেষ দিনে (রমজানের ২৮তম রাত) হজ যাত্রী ও হজ যাত্রীসহ ২৫ লাখ মুসলমান অংশ নেন।মক্কার গ্র্যান্ড মসজিদ মসজিদুল হারামে খতম আল কুরআনের শেষ দিনে (রমজানের ২৮তম রাত) হজ যাত্রী ও হজ যাত্রীসহ ২৫ লাখ মুসলমান অংশ নেন।

তার সঙ্গে ২৫ লাখেরও বেশি মুসল্লি নামাজে অংশ নেন। উভয় মসজিদই মুসল্লিদের ভিড়ে পূর্ণ ছিল। শুধু তাই নয়, অনেক মুসলমান মসজিদ প্রাঙ্গণে এবং আশেপাশের রাস্তায় নামাজ আদায় করেন। সৌদি প্রশাসনের গৃহীত পদক্ষেপে তারা শান্তি ও নিরাপত্তার সঙ্গে ইবাদত-বন্দেগি করেন।

নামাজ শেষে ইমাম শেখ আল-সুদাইস মহান আল্লাহর দরবারে দোয়া করেন যেন তিনি এই বরকতময় রাতে সকল মুসলমানকে ক্ষমা করেন এবং জাহান্নামের আগুন থেকে রক্ষা করেন।

সৌদি সরকারের দুটি পবিত্র মসজিদের (মসজিদুল হারাম ও মসজিদ নাবি) প্রধান শেখ আব্দুর রহমান আল-সুদাইসসৌদি সরকারের দুটি পবিত্র মসজিদের (মসজিদুল হারাম ও মসজিদ নাবি) প্রধান শেখ আব্দুর রহমান আল-সুদাইস

তিনি দেশের নেতৃবৃন্দের পাশাপাশি সকল মুসলিম দেশকে ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা এবং তাদের নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা প্রদানের জন্য প্রার্থনা করেন। শুক্রবার (২১ এপ্রিল) সকাল থেকে মুসল্লিরা গ্র্যান্ড মসজিদে নামাজ আদায়ের জন্য জড়ো হন।

এফএস

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments