টিকার জন্য ভোগান্তি চলছেই

0
274

মানুষের জন্য ডেস্ক: দ্বিতীয় ডোজ টিকা নিতে গিয়ে রাজধানীর বিভিন্ন কেন্দ্রে কেন্দ্রে উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। নির্ধারিত তারিখ পেরিয়ে গেলেও এসএমএস না পাওয়ায় কেন্দ্র থেকে তাদের ফিরে যেতে হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন অনেকে।

আবার প্রবাসীদের ভিসা এবং ছুটির মেয়াদ শেষ হয়ে আসায় তারাও এস এমএস পাচ্ছেন না। ফলে টিকা দিতে পাচ্ছেন না অনেকেই। এতে ক্ষোভ বেড়েছে টিকা নিতে আসা সাধারণ মানুষ ও প্রবাসীদের মধ্যে।

সোমবার (১৬ আগস্ট) সকাল থেকেই রাজধানীতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজ, মুগদা জেনারেল হাসপাতাল ও কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল ঘুরে দেখা গেছে, রেজিস্ট্রেশন কার্ডে টিকার দ্বিতীয় ডোজের তারিখ অনুযায়ী কেন্দ্রে গিয়েও এসএমএস না আসায় অনেক টিকা প্রত্যাশীর ফিরে যেতে হচ্ছে।

প্রবাসী রায়হান মিয়া এসেছেন চট্টগ্রাম থেকে। সকাল নয়টা থেকে লাইন দিয়েও টিকা পাননি। তার ভিসার মেয়াদ আছে মাত্র পনেরো দিন। প্রথম ডোজ ঠিকঠাক দিলেও দ্বিতীয় ডোজ দিতে এসে পড়েছেন ভোগান্তিতে। তার টিকা রেজিস্ট্রেশন কার্ডে ১৬ আগস্ট লেখা থাকলেও এসএমএস না পাওয়াতে তিনি টিকা দিতে পারলেন না আজ। তার মতো কয়েকজন প্রবাসী একই কারণে টিকা দিতে না পারায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

প্রবাসীদের প্রথম ডোজ দেওয়া হচ্ছে কেবল মডার্নার। দ্বিতীয় ডোজ মিলছে মডার্না আর ফাইজারের। অন্যদের দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হচ্ছে, সিনোফার্ম বা কোভিশিল্ড। যদিও দ্বিতীয় ডোজ প্রয়োগের ক্ষেত্রে দেখা গেছে অব্যবস্থাপনার চিত্র।

অনেকের অভিযোগ, নির্ধারিত তারিখ পেরিয়ে গেলেও আসেনি এসএমএস। কেন্দ্রে এসেও টিকা না পেয়ে ফিরতে হয় অনেককেই। এতে কোনো কোনো কেন্দ্রে তৈরি হয় বিশৃঙ্খলা।

মুগদা জেনারেল হাসপাতালের পরিচালক ডা. অসীম কুমার বলেন, ‘দ্বিতীয় ডোজ নিয়ে কোনো সংকট হবে না। পর্যায়ক্রমে সবার কাছেই যাবে এসএমএস। আমরা এই হাসপাতালে প্রতিদিন ১২০০ মানুষকে টিকা প্রদান করছি। যদিও এর বেশি মানুষ আসছেন কেন্দ্রে। এস্মএস না পেয়ে কেউ কেন্দ্রে এলে তাদের আমরা টিকা দিতে পারছি না। এই ব্যাপারে আমরা অপারগ।’

টিকা নিতে আসা প্রবাসী, অন্যান্য মানুষ এবং টিকা সংশ্লিষ্ট রেডক্রিসেন্টের স্বেচ্চাসেবকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, টিকা সংকটের কারণে এবং এসএমএস না পেয়ে আসার কারণে অনেককে প্রতিদিন কেন্দ্র থেকে ফিরে যেতে হচ্ছে।

কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের টিকা ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে থাকা ডা, রাশেদ আহমেদ বলেন, ‘পর্যাপ্ত টিকার মজুত আছে। দ্বিতীয় ডোজ সবাই পাবেন। পর্যায়ক্রমে পাঠানো হবে এসএমএস। একটু ধৈর্য ধরতে হবে সবাইকে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here