Wednesday, November 29, 2023
Homeজাতীয়জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হলো আদানির বিদ্যুৎ

জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হলো আদানির বিদ্যুৎ

ভারতের আদানি গ্রুপের বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে আসা শুরু হয়েছে। আজ বৃস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে আদানির বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু হয়। আদানি থেকে আমদানি করা বিদ্যুৎ কতটা কমে আনা যায়, তা নিয়ে আলোচনা করতে আগামী ১৩ মার্চ বাংলাদেশের একটি প্রতিনিধি দল ভারতে যাবে।

আজ সন্ধ্যা ৭টা ৩৮ মিনিটে বাংলাদেশের গ্রিডের সঙ্গে আদানির বিদ্যুৎ সংযুক্ত হয়। রাত ৯টা পর্যন্ত ৫০ মেগাওয়াট বা তার কম-বেশি বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হয়েছে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়।

বাংলাদেশে বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য আদানি দুটি ইউনিটের বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করেছে। এর উৎপাদন ক্ষমতা ১ হাজার ৪৯৮ মেগাওয়াট। এর মধ্যে ৭৫০ মেগাওয়াটের একটি কেন্দ্র আজ উৎপাদনে এসেছে। অন্য ইউনিটটির এ বছরেই উৎপাদনে আসার কথা রয়েছে।

এর আগে আদানির বিদ্যুৎতেক দাম বেশি হওয়া নিয়ে শুরু হয় বির্তক। এর মধ্যেই আদানির কেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরুর তোড়জোড় হয়। কেন্দ্রটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হওয়ার কথা ছিল ২৬ মার্চ।

পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি অব বাংলাদেশ (পিজিসিবি) সূত্রে জানা গেছে, আদানির বিদ্যুৎ সঞ্চালন করার জন্য ভারত এবং বাংলাদেশ প্রান্তে যে গ্রিড লাইন রয়েছে তার মধ্যে বাংলাদেশ অংশের কাজ শেষ করেছে পিজিসিবি। পিজিসিবির তরফ থেকে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডকে (পিডিবি) আনুষ্ঠানিকভাবে লাইনটি বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য প্রস্তত রয়েছে বলে জানানো হয়।

এদিকে, আদানির সঙ্গে বিদ্যুৎকেন্দ্রে ব্যবহৃত কয়লার দাম, বিদ্যুতের সঞ্চালনসহ কয়েকটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে আগামী ১৩ মার্চ ভারতে যাবেন পিডিবি কর্মকর্তারা।

উল্লেখ্য, আদানির বিদ্যুৎকেন্দ্রটি ভারতের ঝাড়খণ্ড রাজ্যের কোড্ডা জেলায়।সেখান থেকে সঞ্চালন লাইনের মাধ্যমে বিদ্যুৎ আসবে চাপাইনবাবগঞ্জের রোহনপুরে। সেখান থেকে যাবে বগুড়াতে।

ঝাড়খন্ডের বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি থেকে সঞ্চালনের জন্য মোট ২৪৪ কিলোমিটার সঞ্চালন লাইন নির্মাণ করা হয়। এরমধ্যে ভারতে ১০৮ কিলোমিটার এবং বাংলাদেশে ১৩৬ কিলোমিটার সঞ্চালন লাইন রয়েছে।

এফএস

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments