Sunday, May 19, 2024
Homeস্পটলাইটখালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নিয়ে যা জানালেন চিকিৎসক

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নিয়ে যা জানালেন চিকিৎসক

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা আগের মতো আছে বলে জানিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের ব্যক্তিগত চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন।

আজ সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে খালেদা জিয়া গুলশানের বাসা ফেরার পর সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন ডা. জাহিদ।

তিনি বলেন, ‘স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য মেডিকেল বোর্ডের চিকিৎসকদের পরামর্শক্রমে বেগম খালেদা জিয়া এভারকেয়ার হাসপাতালে গিয়েছিলেন। সেখানে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা করা হয়েছে। ওই পরীক্ষার রিপোর্ট আগামীকাল মঙ্গলবার পাওয়া যেতে পারে। তারপর চিকিৎসকরা বসে পরবর্তীতে ম্যাডামের চিকিৎসার বিষয়ে প্রয়োজনীয় সিদ্ধান্ত নেবেন।’

বর্তমানে খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা কেমন জানতে চাইলে ডা. জাহিদ বলেন, ‘উনি আগের মতোই আছেন। শারীরিক অবস্থা পূর্বের ন্যায় আছে। অবস্থার তেমন কোনো পরিবর্তন হয় নাই।

খালেদা জিয়া স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য বিকেল সোয়া ৪টার দিকে গুলশানের বাসভবন ‘ফিরোজা’ থেকে রওনা দেন। বিকেল ৫টা ৪০ মিনিটে তিনি রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে পৌঁছান। হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে সন্ধ্যা ৭টা ১৩ মিনিটে হাসপাতাল থেকে তিনি বাসার উদ্দেশে রওনা দেন। রাত সাড়ে ৮টার দিকে তিনি বাসায় পৌঁছেন।

এভারকেয়ার হাসপাতালের হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক শাহাবুদ্দিন তালুকদারের নেতৃত্বে চিকিৎসাধীন আছেন খালেদা জিয়া। গত বছরের ১১ জুন এভারকেয়ার হাসপাতালে খালেদা জিয়ার হার্টে একটি স্টেন্ট স্থাপন করা হয়।

৭৭ বছর বয়সী সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া আর্থ্রাটিস, ডায়াবেটিস, কিডনি, হৃদপিণ্ডে জটিলতা, ফুসফুস, চোখ ও দাঁতের সমস্যায় ভুগছেন। ২০২১ সালের এপ্রিলে গুলশানের বাসা ‘ফিরোজায়’করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর তাকে ৬ বার এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিতে হয়েছে।

এদিকে, খালেদা জিয়ার হাসপাতালে যাওয়ার খবরে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী ফিরোজা এবং এভারকেয়ার হাসপাতাল এলাকায় ভিড় করেন। এ সময় উল্লেখযোগ্য নেতাদের মধ্যে ছিলেন মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, আফরোজা খান রিতা, বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, বিএনপির স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. রফিকুল ইসলাম, ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক রকিবুল ইসলাম বকুল, গাজীপুর জেলা বিএনপির সভাপতি ফজলুল হক মিলন, ঢাকা মহানগর উত্তরের সদস্য সচিব আমিনুল হক, যুবদলের সাবেক সভাপতি সাইফুল আলম নিরব, মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস, যুবদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু প্রমুখ।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments