খালেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠানোর দাবি তোলায় আওয়ামী লীগ নেতাকে শোকজ

0
1071

প্রয়োজনে আইন পরিবর্তন করে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর দাবি জানানো সেই আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল মোতালেব হাওলাদারকে কারণ দর্শানোর নোটিশ (শোকজ) দিয়েছে জেলা আওয়ামী লীগ। আজ সোমবার ডাকযোগে এই নোটিশ পাঠানো হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী আলমগীর হোসেন। তিনি বলেন, ‘দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ এনে ডাকযোগে আব্দুল মোতালেব হাওলাদারকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে নোটিশের জবাব দিতে বলা হয়েছে।’

আবদুল মোতালেব পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান।

এর আগে, গত শনিবার রাতে আব্দুল মোতালেব হাওলাদার নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে এক স্ট্যাটাসে লেখেন, ‘রাজনৈতিক কারণে আইন পরিবর্তন করে হলেও বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়াকে বিদেশে চিকিৎসার সুযোগ করে দেওয়া হউক।’ মুহূর্তের মধ্যে স্ট্যাটাসটি ভাইরাল হয়ে যায়। স্ট্যাটাসে আরও লেখা ছিল, ‘মন্তব্য না করার জন্য অনুরোধ করছি।’

অথচ মন্তব্যের ঘরে বিভিন্ন দলের মতাদর্শের নেতাকর্মীরা মন্তব্য করেন। বিএনপি নেতাকর্মীরা যেমন ওই মন্তব্যে তাকে (আব্দুল মোতালেব হাওলাদারকে) একজন খাঁটি আওয়ামী লীগ নেতা হিসেবে উল্লেখ করেছেন। তেমনি আওয়ামী লীগ মতাদর্শের নেতাকর্মীরা হতাশা প্রকাশ করে মন্তব্য করেছেন।

ওই স্ট্যাটাসে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক নেতা মামুনুর রশিদ মামুন মন্তব্য করেন, ‘যারা শেখ হাসিনাকে হত্যা করতে চেয়েছিল কয়েকবার। তাকে আপনি চিকিৎসার কথা বলেন?’

সেখানে উপজেলা আওয়ামী লীগের আরেক নেতা আনিস হাওলাদার মন্তব্য করেন, ‘বড় বেমানান চেতনা।’

উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ইব্রাহিম খলিলসহ অনেকেই এই বক্তব্যকে সংগঠন বিরোধী দাবি করে বলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিগত ইউপি নির্বাচনগুলোতে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে নৌকার প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেছেন। এমনকি এক নৌকার বিদ্রোহী করায় বহিষ্কৃত এক আওয়ামী লীগ নেতার পক্ষ নিয়ে ফেসবুক স্ট্যাটাস দিয়েছিল। এছাড়াও বিভিন্ন সময় তিনি সংগঠনবিরোধী কাজ করে সংগঠনের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করেছেন।’

এ বিষয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. ইব্রাহিম ফারুক বলেন, ‘৭৫’র ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারের হত্যা ও ২০০৪’র ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা করে প্রধানমন্ত্রীকে হত্যা চেষ্টার সঙ্গে বিএনপি ও জিয়া পরিবার সরাসরি জড়িত। তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের পদে থেকে বিএনপি নেত্রীর জন্য যে মায়াকান্না ও আইন পরিবর্তন করে বিদেশে চিকিৎসার দাবি জানিয়েছেন তা অত্যন্ত দুঃখজনক। যা সংগঠনবিরোধী বক্তেব্যর সামিল। তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।’

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মোতালেব হাওলাদার বলেন, ‘শেখ হাসিনা মানবতার মা, তিনি খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে বাসায় থাকার সুযোগ দিয়েছেন। তিনি যে মানবতার মা, তা খালেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠালে সেটা আরও একবার প্রমাণ হবে। আমি রাজনৈতিক কারণে লিখেছি, এখানে দোষের কিছু দেখছিনা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here