কুড়িগ্রামে নারী শ্লীলতাহানির অভিযোগে মাদ্রাসা শিক্ষক গ্রেপ্তার

0
361

মানুষের জন্য ডেস্ক: কুড়িগ্রাম সদর উপজেলায় স্বামীকে তাবিজের মাধ্যমে বশীকরণের প্রলোভন দেখিয়ে নারীর শ্লীলতাহানির অভিযোগে মাদ্রাসা শিক্ষককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মাওলানা মোফাচ্ছের হোসেন সামসি (৪৫) নামে ঐ শিক্ষককে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে ভুক্তভোগী গৃহবধূর স্বামীর দায়ের করা মামলায় সোমবার (১৬ আগস্ট) রাতে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

মোফাচ্ছের হোসেন কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার হরিকেশ কানিপাড়া গ্রামের মৃত শামছুল হকের ছেলে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মোফাচ্ছের হোসেন এক সময় কুড়িগ্রাম সদরের একটি মসজিদের ইমাম ছিলেন। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় নারী কেলেঙ্কারির অভিযোগ থাকায় তাকে মসজিদ থেকে বহিষ্কার করা হয়। বর্তমানে তিনি সদর উপজেলার যাত্রাপুর ইউনিয়নের একটি মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করেন। এর আগে হজের টাকা নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার অপরাধে তিনি জেল খেটেছেন।

কুড়িগ্রাম সদর থানার অফিসার ইনচার্জ খান মো. শাহরিয়ার জানান, হরিকেশ কানিপাড়ার এক নারীর স্বামীকে বশে আনার জন্য তাবিজসহ বিভিন্ন উপায়ে প্রলোভন দেখিয়ে আসছিলেন মোফাচ্ছের হোসেন। প্রলোভনের ফাঁদে পা দেন ঐ নারী। গত ১৩ আগস্ট সুযোগ পেয়ে তার শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেন মোফাচ্ছের হোসেন। এরপর ভুক্তভোগী নারীর স্বামীর দায়ের করা মামলায় অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here