Saturday, March 2, 2024
Homeস্পটলাইটএবার লাফিয়ে বাড়লো লবণের দামও

এবার লাফিয়ে বাড়লো লবণের দামও

মানুষের জন্য ডেস্ক: দ্রব্যমূল্যের বাজারে এবার মূল্যবৃদ্ধির তালিকায় যোগ হল লবণও। চাল-ডাল-তেলের বাজার যখন অস্থির, তখন অতিপ্রয়োজনীয় লবণও নিজের জায়গা বদলালো। জানা গেছে, বাজারে আয়োডিনযুক্ত প্যাকেটজাত লবণের দাম বেড়েছে কেজিপ্রতি তিন টাকা। বাজারে অন্যান্য পণ্যের দাম যখন অস্থির, তখন উৎপাদনকারী কোম্পানিগুলো লবণের দামও সমন্বয় করল।

গত জুলাইয়ে কোরবানির ঈদের পর থেকে পাইকারিতে মোড়কজাত লবণের দাম বাড়ছিল। তবে খুচরা মূল্য ঠিক ছিল। এখন মোড়কজাত লবণের খুচরা মূল্যও বাড়ানো হলো।

সোমবার লবণ ব্যবসায়ী, রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ও খুচরা বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বাজারে সুপরিচিত একটি ব্র্যান্ডের এক কেজি লবণের মোড়কে দাম এখন ৩৮ টাকা। গত মাসে পণ্যটি উৎপাদন করা হয়েছে। লবণের এই প্যাকেটটির আগের ছিল ৩৫ টাকা। সেই হিসাবে খুচরা পর্যায়ে দাম বেড়েছে কেজিপ্রতি ৩ টাকা।

খুচরা ব্যবসায়ীরা বলছেন, গত মাসে ২৫ কেজি লবণের একটি বস্তা কিনেছেন ৮০০ টাকায়। তাতে মোড়কজাত লবণের প্রতি কেজি পাইকারি দাম পড়েছিল ৩২ টাকা। এক বস্তা লবণের দাম কোরবানির ঈদের সময় ছিল ৭৫০ টাকা। দুই মাসের কম সময়ে ২৫ কেজি লবণের বস্তায় দাম বেড়েছে ৫০ টাকা।

বছরে দেশে আয়োডিনযুক্ত অর্থাৎ খাওয়ার লবণের চাহিদা প্রায় ৯ লাখ টন। প্রতি টন লবণ পরিমিত মাত্রায় আয়োডিনযুক্ত করতে প্রায় ৫৫ গ্রাম পটাশিয়াম আইয়োডাইড প্রয়োজন হয়। সেই হিসাবে প্রতিবছর আয়োডিন লাগে ৪০ টনের বেশি। এসব আয়োডিন সরকারিভাবে আমদানি করা হয়।

বাংলাদেশ লবণ মিল মালিক সমিতির তথ্য অনুযায়ী, সারা দেশে ৩০০-এর বেশি লবণ মিল রয়েছে। তার মধ্যে আধুনিক প্রযুক্তির মিল আছে ৫টি।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments