এবার ছাত্রলীগের সাবেক দুই নেতাকে চাকরি দিলেন প্রতিমন্ত্রী পলক

0
172

এবার সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগে ছাত্রলীগের সাবেক দুই নেতাকে চাকরি দিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। বুধবার (৩১ মে) রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) শাখা ছাত্রলীগের সাবেক নেতা টগর মো. সালেহ ও সাইফুর রহমান বাদশার হাতে চাকরির নিয়োগপত্র তুলে দেন প্রতিমন্ত্রী।

জানা যায়, ২০১৪ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের রাজনীতিতে সক্রিয় থাকায় টগরের হাত ও পায়ের রগ কেটে দেয় শিবির নেতা-কর্মীরা। আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে উন্নত চিকিৎসা করানোর ফলে সেই যাত্রায় বেঁচে ফিরেন তিনি। এরপর থেকে দ্বারে দ্বারে ঘুরেও চাকরি পাচ্ছিলেন না টগর। ২০২১ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চমান সহকারী পদে নিয়োগ হওয়ার কথা ছিল টগরের। তবে অদৃশ্য কারণে সেই নিয়োগ এখনো আটকে আছে।

সম্প্রতি ছাত্রলীগের সাবেক নেতাদের চাকরি পাওয়া নিয়ে আলোচনা হলে তা দৃষ্টিগোচর হয় প্রতিমন্ত্রী পলকের। তাই বুধবার প্রতিমন্ত্রী টগর মো. সালেহকে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অধীন শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব স্থাপন প্রকল্প-২ এর চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার ট্রেনিং কো-অর্ডিনেটর এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সাইফুর রহমান বাদশাকে একই প্রকল্পের ঠাকুরগাঁও জেলার ট্রেনিং কো-অর্ডিনেটর পদে চাকরির নিয়োগপত্র তুলে দেন।

সাবেক ছাত্রলীগ নেতা টগর মো. সালেহ বলেন, ‘আমি অনেক আগে পড়ালেখা শেষ করেছি। কিন্তু কোনো চাকরিতে ছিলাম না। তাই খারাপ লাগতো। আজকে চাকরি পেয়ে ভালো লাগছে।’

সাইফুর রহমান বাদশা বলেন, ‘দেশের প্রত্যেক এমপি-মন্ত্রী ২-৪ জন করে নির্যাতিত, অসহায় সাবেক ছাত্রনেতা কর্মীর দায়িত্ব নিলে দেশে আর কোনো শিক্ষিত সাবেক ছাত্রনেতা, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের কর্মী করুণ অবস্থায় দিনাতিপাত করতো না।’

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী কাজ করার সুযোগ দিয়েছেন। যতটুকু সম্ভব তার মধ্যে থেকে নিয়মতান্ত্রিকভাবে তরুণদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করছি। আমার ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের দেখছি। এটা আমার নৈতিক দায়িত্ব।

চাকরি দেওয়ার বিষয়টি প্রতিমন্ত্রী ফেসবুক পোস্টেও জানান। তিনি উল্লেখ করেন, আজ (বুধবার) সকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিক্ষক প্রশিক্ষণ কার্যক্রম মনিটরিং ও সমন্বয় করার জন্য রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের ছাত্রবৃত্তি বিষয়ক সম্পাদক নির্যাতিত ছাত্রনেতা টগর মো. সালেহ এবং ঠাকুরগাঁও জেলার শিক্ষক প্রশিক্ষণ কার্যক্রম মনিটরিং ও সমন্বয় করার জন্য সাবেক ছাত্রলীগের নির্যাতিত কর্মী মো. সাইফুর রহমানকে ‘ট্রেনিং কো-অর্ডিনেটর’ হিসেবে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব স্থাপন প্রকল্পে চাকুরীর নিয়োগ পত্র হাতে তুলে দিলাম। শুভকামনা তোমাদের জন্য।

এর আগে সোমবার (২৯ মে) নিজের সার্টিফিকেট পুড়িয়ে প্রতিবাদ জানানো ইডেন কলেজের ছাত্রী মুক্তা সুলতানাকে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অধীন ‘এস্টাবলিশমেন্ট অব সিকিউরড ইমেইল ফর গভর্নমেন্ট অ্যান্ড ডিজিটাল লিটারেসি সেন্টার’ প্রজেক্টে ‘কন্টেন্ট ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড সোশ্যাল কমিউনিকেশন অফিসার’ পদে চাকরির নিয়োগপত্র তুলে দিয়েছিলেন পলক।

এফএস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here